Text size A A A
Color C C C C
পাতা

কী সেবা কীভাবে পাবেন

শিক্ষানবীস ড্রাইভিং লাইসেন্স

 

১।     নির্দ্ধারিত আবেদন ফরমে আবেদন।

২।     প্রযোজ্য ফি জমা রশিদ।

৩।     আবেদনকারী ০১ (এক) কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবি সহ মেডিকেল ফরমে রেজিষ্ট্রার্ড ডাক্তার প্রদত্ত মেডিকেল সার্টিফিকেট।

৪।     প্রার্থীর জন্ম নিবন্ধন/এসএসসি/স্কুল সার্টিফিকেট এর সত্যায়িত অনুলিপি।আবেদন তারিখে পেশাদার লাইসেন্স এর ক্ষেত্রে কমপক্ষে ২০ 

        (কুড়ি) এবং অপেশাদার লাইসেন্স এর ক্ষেত্রে কমপক্ষে ১৮ (আঠার) বছর হতে হবে।

৫।     প্রার্থীর সদ্য তোলা ০৩ (তিন) কপি ষ্ট্যাম্প সাইজের ছবি।

৬।     আবেদন পত্র জমা ও ফি জমা রশিদের গ্রাহক কপি প্রদর্শন করা প্রাপ্তি স্বীকার রশিদ গ্রহন ও নির্দ্ধারিত তারিখে প্রাপ্তি স্বীকার রশিদ

        প্রদর্শন করে শিক্ষানবীশ লাইসেন্স গ্রহন।

৭।     শিক্ষনবীস লাইসেন্স এর মেয়াদ ০২ (দুই) মাস অতিত্রুম হলে মুল লাইসেন্সের এর জন্য বিআরটিএ কর্তৃক পরীক্ষা আহ্বান করা হলে

        পরীক্ষায় অংশ গ্রহন করে কৃত কার্য হওয়ার পর ফি প্রদান সাপেক্ষে মুল লাইসেন্স গ্রহন করা হয়।

 

 

মোটরযান রেজিষ্ট্রেশন সংক্রান্ত:-

 

১।       (ক)    আবেদনপত্র (এইচ ফরম) মালিক ও আবেদনকারী/ডিলার কর্তৃক যথাযথভাবে পূরন ও স্বাক্ষর কৃত হতে হবে।

          (খ)    যৌথ মালিকানার ক্ষেত্রে উভয় পক্ষের স্বাক্ষর এবং প্রতিষ্ঠান/ কোম্পানীর ক্ষেত্রে স্বাক্ষর ও সীল মোহর।

          (গ)    যদি ব্যাংক অথবা অর্থগ্নি প্রতিষ্ঠানের সাথে গাড়ীর মালিকানায় আর্থিক সংশ্লিষ্টতা থাকে তবে ব্যাংক বা অর্থ লগ্ণি প্রতিষ্ঠানের

                  প্যাডে রেজিঃ অথরিটি বরাবর আবেদন করতে হবে।

২।     ইনভয়েস ( কাষ্টমস্ কর্তৃপক্ষ কর্তৃক স্বাক্ষরিত ) এর মূল কপি ।

৩।     বিল অব লেডিং এল,সিএ (সংশ্লিষ্ট ব্যাংক কর্তৃপক্ষ স্বাক্ষরিত) ।

৪।     ইমপোর্ট পারমিট /এলসিএ ( সংশ্লিষ্ট ব্যাংক কর্তৃপক্ষ স্বাক্ষরিত)।

৫।     সেলস্ সার্টিফিকেট /রিক্সায় প্রমান পত্র (আমদানীকারক/বিক্রেতা)।

৬।     সেল ইন্টিমেশন (রেজিঃ কর্তৃক বরাবরে) আমদানী কারক (বিক্রেতা কর্তৃক স্বাক্ষরিত)।

৭।     গেইট পাশ (সি,কে,ডি রেজিষ্ট্রেশনের ক্ষেত্রে)।

৮।     ডেলিভারী চালান ও প্যাকিং লিষ্ট।

৯।     বিদেশী নাগরিক এর নামে রেজিঃ/মালিকানা বদলী হলে বাংলাদেশের ওয়ার্ক পারমিটের এবং ভিসার মেয়াদের কপি।

১০।    মুসক-১১, মুসক-১১(ক) ও ভ্যাট পরিশোধের চালান।

১১।    TIN সার্টিফিকেট (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে)।

১২।    সরেজমিনে পরিদর্শনের জন্য মোটরযানটি সংশ্লিষ্ট বিআরটিএ অফিসে উপসিহত করা।

১৩।    প্রয়োজনীয় ফি জমার রশিদ

১৪।    ব্যক্তি মালিকানাধীন আবেদন এর ক্ষেত্রে জাতীয় পরিচয় পত্রের ফটোকপি/ পাসপোর্ট /টেলিফোন বিল/বিদ্যুৎ বিল ইত্যাদি ফটোকপি

        সত্যায়িত।

 

ফিটনেস নবায়নঃ-

 

১।     আবেদনকারী কর্তৃক নির্ধারিত ফরমে আবেদন।

২।     ফিটনেস সার্টিফিকেট এর মূলকপি (হারিয়ে গেলে জিডি কপি দিতে হবে)।

৩।     প্রয়োজনীয় ফি জমার রশিদ।

৪।     হালনাগাদ ট্যাক্স টোকেন এর ফটোকপি।

৫।     টিআইএন সংক্রান্ত কাগজপত্র সত্যায়িত কপি (ভাড়ায় চলিত নহে এমন কার,জীপ ও মাইক্রোবাস)।

৬।     ভাড়ায় চলিত মোটরযানের ক্ষেত্রে অনুমোদিত আয়কর প্রদানের প্রমানপত্র।

৭।     পরিদর্শনের জন্য সংশ্লিষ্ট বিআরটিএ মোটরযান হাজির করতে হবে।